কাশ্মীরে কান্না – ড. মহাদেব চন্দ্র দাস

সােপিয়ান উৎসবের সূচনা হয়েছে ভারতের জাতীয় সঙ্গীত এবং কাশ্মীরের সঙ্গীতের মাধ্যমে। এইখানে হাজার হাজার লােকের উপস্থিতিতে এই উৎসব। উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন সােপিয়ানের জেলা শাসক। খুবই উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্যেই এই অনুষ্ঠান। আকশার আশা শেষ হল। সমিম আর আকশার কথাবার্তাও পরিপূর্ণতা পেল না। আধাসামরিক বাহিনী। বিভিন্ন জায়গায় তল্লাশি চালালাে কিন্তু কোথাও কাউকে পেল না। চারিদিক থেকে […]

Continue Reading

শ্যামলী – কাজল চ্যাটার্জী

শ্যামলী একটি ছােট্ট হাবা, বােবা মেয়ে, এক দরিদ্র পরিবারে জন্ম হয়েছে তার। জন্ম থেকেই শ্যামলী মূক ও বধির, ঈশ্বর যাকে যেমন ভাবে সৃষ্টি করে, নিয়তির ফলের নিয়মে বাধ্য হয়ে তাকে মেনে নিতে হয়। চেষ্টার কেউ কোনাে ত্রুটি রাখে না, শ্যামলীর বাবা, মা, অনেক চেষ্টা করেও তাকে ভাল করতে পারে নি, তার কথা ফোটেনি ঠিকই, তাই […]

Continue Reading

বড় পুকুর – সুকুমার পাল

সেদিন সূর্যগ্রহণ। বৈকাল ৫.২৯ মিঃ স্পর্শ এবং ৫.৫৮ মিঃ মােক্ষ। নিয়মানুসারে সেই সময়টুকুর মধ্যে প্রায় সকলেই ধর্মালােচনা, হরি-সংকীৰ্ত্তন ও গঙ্গাস্নানের মাধ্যমে পুণ্যার্জনে ব্রতী হন। গ্রামে গঞ্জেও অনুরূপভাবে হরিসংকীৰ্ত্তনের দল নিয়ে পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে বেড়ায় এবং মােক্ষ প্রাপ্তি হলে পুকুরে বা নদীতে পুণ্যস্থান করে মনকে। পবিত্র করে। | লছমনপুর এক সাবেকী গ্রাম। Ma বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের […]

Continue Reading

আজাদী কা জুলুস – নলিনী বেরা

দামােদর কারাে কোয়েল কোয়না সুবর্ণরেখা—হতে পারে যে কোনও নদী। আর নয়তাে নেংসাই টাটুকো কুমারী কী কংসাবতী। নদীধারের গ্রাম, টিলার উপর। টিলার কাছে-দূরে বন-ডুংরি।। কত রকম গাছপালা—শাল-সিমােল-কেঁদ-কুসুম! | বনধারে গরু চরে, ছাগল চরে। শূওর ঘোঁৎ ঘোঁৎ করে মাটি খুঁড়ে। মােরগ-মুরগা ডাকে। মাঝে মাঝে শিয়াল-হুড়ার ভাম-খাটাস এসেও দু-চাট্টা নিয়ে যায়। আর হাঁ, গাঁওমে রাত-ভিত হাতি ভি আসে! […]

Continue Reading

চিলে নদীর সাঁকো – ষষ্ঠী পদ চট্টোপাধ্যায়

ট্রেন থেকে নেমে মেঠো পথে মাঠে মাঠে এগিয়ে চলেছি। আশপাশে কোনও গ্রামের চিহ্ন নেই। যতদূর চোখ যায় শুধু মাঠ আর মাঠ। ধূ ধূ করছে মাঠ। এবড়াে খেবড়াে মাটির চাঙড়ে ভরা এক অসমতল প্রান্তর। বীরভূমের বৃক্ষবিরল এই অনুর্বর মাটিকে চষে তবুও ফসল ফলাবার চেষ্টা করা হয়েছে। তাই আঁটিসার বাঁকা বেঁটে খেজুর গাছ অথবা কালাে কালাে তালগাছের […]

Continue Reading

সংকট – আবদুস সালাম

 নষ্ট – বাসস্থানে নেমে আসে চঁাদ দুঃখের বারান্দায় স্বপ্ন খেলা করে বিষঃ ছায়ায় ঘুমিয়ে পড়ে মূল্যবােধ। ভুলের পাহাড় আড়াল করে চঁাদ কে ভালােবাসার নদীতে বহে বিষণ্ণ জল অতৃপ্তি হৃদয়ের মাঠে কোনও ঘাস নেই পাঁঠারা চরতে আসে অতৃপ্তির আহ্বাদ দেখে শিংএ-শিংএ কসরত দেখায়

Continue Reading

শহিদ-স্মৃতির আকাঙ্খিত কথা – নাসীর

হয়তাে আমার মৃত্যুর পর জীবনের শেষ দিবা। কোথাও দাঁড়াবে এসে, আমার রক্তে অথবা বিশ্বাসে নবপ্রজন্মেরা তােমরা আমার মৃতদেহটি মিশিয়ে দিয়ে এই সবুজ দেশের ঘাসে। আমার মৃত্যুর পর তরুণ কবিরা যারা মৃত্যুশকট তুলে নিয়ে হাতে হাতে, প্রবীণরা যারা এগিয়ে আসবে ওরা যেন নেয় কঁাধে, তবেই তাে আমি পৌঁছে যাব সাথিদের সাথে সাথে আরেক প্রজন্মের গর্ভধারিনীর নূতন […]

Continue Reading

বাঁক – দীপক মান্না

হঠাৎ বাঁক নিয়েছে জীবন; হেমন্ত বসন্তকে পিছনে ফেলে জ্যৈষ্ঠের খাঁ খাঁ রােদুর এসে দাঁড়িয়েছে উঠোনে। ধর্ম বিলাসী মানুষ শুকিয়ে বাষ্পীভূত হতে চলেছে জীবনের খামে বিচ্ছেদের চিঠি ভরে দিয়ে গেছে আহাম্মক সময়; পড়ছি … ভাবছি … শিখছি … কিভাবে পেরােতে হয় বৈতরণী।

Continue Reading

ফিরে পাওয়া – স্বপন কুমার মিত্র

আজ সকালে এক টুকরাে রােদ, আমাকে স্পর্শ করল। সেই উত্তাপ যেন আমাকে, এক অনন্য অনুভূতিতে পৌছে দিল। মনে হল অনেকদিন পরে, হারিয়ে যাওয়া আমার কৈশাের, আমাকে আবার খুঁজে পেল। বাড়ি ফেরার পথে, গােধূলির সােনাঝরা আলােয়, সােনালি আমন আমাকে মাথানত করে, আবার দেখা হবে বলল। কুয়াশামাখা ভােরের খেজুরগাছ, স্নিগ্ধ হেসে আমাকে গত সন্ধ্যার, দুষ্টুমির কথা মনে […]

Continue Reading

অনুরাগ – ডঃ শর্মিলা মজুমদার

পরিবর্তনের হাওয়া এল— তাই বলে কি এমন হল | তােমাকে তাে কখনাে এমন করে ভাবিনি তােমাকে তাে কখনাে এমন করে দেখিনি তােমার কণ্ঠস্বরে যে আবেগ ছড়াত— তােমার পরশে যে উষ্ণতার পরশ তা নিয়ে যেতে দূরে বহুদূরে! যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলেইছি সকলে তাই বলে কি মনের কোণার একটু বাসা উপড়ে দেব ফেলে! মাঝে মাঝে বদলাও […]

Continue Reading