অন্য রবীন্দ্র নাথ – রানু রায়

গল্প সাহিত্য
Spread the love

মাের নাম এই বলে খ্যাত হােক| আমি তােমাদেরই লােক। রবীন্দ্রনাথকে আমাদের লােক বলে পাওয়ার ইচ্ছা পূরণ হয়নি। দূর থেকে বেদি আসন ‘গুরুদেব’ কে প্রণাম করে তারা ফিরে গেছে। কবি বুদ্ধদেব বসু রবীন্দ্রনাথের প্রতি তার গভীর শ্রদ্ধা নিয়েই তাঁর পরিচয় খুঁজেছেন বুর্জোয়া সংস্কৃতির সৃজনশীল ও প্রগতিশীল ফসল হওয়ার মধ্যে। কবি জনগণের বন্ধু হতে চেয়েছেন। গ্রাম বাংলার মানুষের মধ্যে নেমে ‘গােরা’ উপন্যাসের নায়ক গােরার চৈতন্য হল। গােরার স্রষ্টা রবীন্দ্রনাথও গ্রামের নিরন্ন নিঃসহায় পীড়িত, অপমানিতের পাশে কবি হিসেবে নয় কর্মী হিসেবে দাঁড়িয়েছেন।

নিজের জমিদারিতে বর্গাদারদের স্বার্থরক্ষার, মহাজনের ঋণ। থেকে চাষিকে মুক্ত করার, গরিব প্রজাদের কর মুকুব, অন্ধ পঙ্গুদের ভাতার ব্যবস্থা করেছিলেন স্পষ্ট করে বলেছিলেন, নীতিগতভবে জমির স্বত্ব চাই চাষির। বিভিন্ন জায়গায় জমিদারকে খাজনা দেওয়া বন্ধ করা সমর্থন করেছেন। শিলাইদহে জমিদারিতে পুন্যাই , অনুষ্ঠানে জাতি-ধর্ম-বর্ণ-শ্রেণী সামাজিক মর্যাদা অনুসারে। বসার প্রথা ভেঙে দিয়ে জমিদার কবিসহ সকলের জন্য। সমতলে মজুরের ব্যবস্থা করলেন। জমিদারদের বললেন জমির জোঁক প্যারা সাহা পরাশ্রিত জীব। জমিদার মহাজনরা রবীন্দ্রনাথকে বিপজ্জনক মনে করেছেন। দুই বিঘা জমির’ জমিদার, শাস্তি, দুর্বুদ্ধি, সমস্যা পূরণ, বড় খবর, সহজপাঠ, দ্বিতীয় ভাগে গরিব প্রজা উদ্বমণ্ডলের জমি খুইয়ে মজুরে পরিণত হওয়ার এবং অত্যাচারী জমিদার দুর্লভবাবুর নিষ্ঠুরতার মতাে গল্পে, গােরা উপন্যাসে, রক্তকরবী’, ‘রথের রাশি, মুক্তধারা’, ‘রাজা ও রানী, ‘চণ্ডালিকা’-র মতাে নাটকে, প্রবন্ধে রাশিয়ার চিঠি, ছিন্নপত্রে

নানাভাবে রবীন্দ্রনাথের জনগণের হবার পরিচয়টি স্পষ্ট।

| তিনি সবস্ময় গণতন্ত্র, ব্যক্তি রাজনৈতিক ও সামাজিক ও অর্থনৈতিক ন্যায়বিচার, স্বার ও শাসন এ গণতান্ত্রিক মূল্যবােধের সপক্ষে তিনি নির্ভয়ে দাঁড়িয়েছেন। রক্তকরবী’ নাটকে দেখিয়েছেন পুঁজিবাদে মানবিকতার বিকাশ ও মানবিক মর্যাদা খর্ব ও ক্ষুন্ন হয়। ‘মুক্তধারা’ নাটকে, ‘সহজ পাঠ’, দ্বিতীয় ভাগের শেষ গদ্য রচনায় মনুষ্যত্বের জোরের কথা বলে শুনিয়েছেন অত্যাচারীরা তাদের মনুষ্যত্ব বিরােধী অবস্থান থেকে মুক্তি পাবে না।

সেতারেতে বাঁধিলাম তার,

গাহিলাম আর বার| মাের নাম এই বলে খ্যাত হােক

আমি তােমাদেরই লােক | আর কিছু নয়, এই হােক শেষ পরিচয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *